অনলাইন ডায়েরীর পাতা থেকে

এক

একান্ত অনুগত ভালোবাসা
প্রত্যেক অভিব্যক্তি স্বতঃস্ফূর্ত
চিনির পরিমাণ সঙ্গত
১১.০৮.২০১৮

দুই

truth  isn’t beautiful
it never was
even the gods play tricks

31.07.2017

তিন

Geometry of life
third quadrant
occupied largely

30.07.2017

চার

কালপুরুষ অন্যপাশে
সেকেন্ডের প্রতি পদক্ষেপে
বাড়ে অশ্লীল নিরবতা
২৭.০৭.২০১৮

পাঁচ

সিমেন্টের জঙ্গল
ছপেয়ে পাখির দল
পনপনিয়ে রাত জাগায়।

বিস্তারিত»

ত্যাল

ইঞ্জিনে ঢালে, খাবারে মেশায়,
কুন্তলে মাখে বালিকা;
তরল সে এক পদার্থ ভাই,
তেল- জগতের চালিকা।

কিন্তু ভ্রাতারা, জান কি তোমরা, সকল তেলের মাসী-
আছে সে ‘ত্যাল’ এক, অসীম শক্তি, সিংহকে করে খাসী?
মাখামাখি ওই তরলে আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা-জনগণ,
সেই ত্যালেরই গুণ গাহি আজ, শুনিও ভ্রাতারা দিয়া মন।

ত্যালের প্রকৃতি অদ্ভুত বড়, মধুর মতই মিষ্ট;
কষ্ট ছাড়াই আনিবে ঠিক সে,

বিস্তারিত»

ডিজেলবাবা

খেজুর-গুড় হাসির
মিষ্টি রসে,
গাল ভরাইয়া,
পড়ে তরতরাইয়া-
জীবন উথালপাথাল আনন্দে ভাসে!
সে আনন্দ, তাহাকে বিনা কি আর আসে?

তাহার
ঘাড়ের মাঝখানে, দেখি হায় একী…
ভীষন সর্বনাশা, জোয়ান মশকী!
বিষভরা দংশন,
নিকষ কালো-
মুহূর্তে গিলিবে সে পৃথিবীর আলো!
কাঁদো কাঁদো কন্ঠে, প্রভুপানে কহি-
“সব মশা না মারিয়া ঘুমাইব নাহি!”

স্কন্ধ কুঞ্চিত,

বিস্তারিত»

লেখালেখি

যাতনাকে সরিয়ে পাশে
যাই লিখে যাই কবিতা
ঝড়ো হাওয়ায় পড়ে বক
হয় নিদারুণ ছবি তা।

বন্ধু জোটে ভক্ত জোটে
জোটে আঁতেল সমালোচক
জোরসে হবে লেখালেখি
যা খুশি তা বলুক লোক।

লোকের বলায় কি আসে যায়,
যা খুশী তা বলুক লোক,
আম জনতার মনের কথাই
কবির পদ্য, কবির শ্লোক!

বিস্তারিত»

ভণিতা

আসলে পরে সহজেতে
পালায় কিছু যাতনা
জবরদস্তি করলে ভায়া
বাড়ে শুধু আবর্জনা

পুরাদস্তুর বাঙ্গাল  বলে
শুনো হে মানুষ ভাই
যা ভাবছো তা নয়
ভনিতা কি বুঝ নাই?

[ সম্ভাব্য রেসপন্সসহ  উত্তর শীঘ্রই যোগ করা হবে ]

 

বিস্তারিত»

দখিন দিকে সূর্য নাকি?

কেমন আজব সকাল দেখি
দখিন দিকে সূর্য নাকি?
বিড়াল বসা গাছের ডালে,
ফিশ বোলে কি চড়ুই নাকি?

কচলে দুচোখ কিচেন রুমে
গিয়ে দেখি বিশাল ঘুমে
শুয়ে আছে সাপের ছানা!
নেউল তাকে জড়িয়ে ধরে
শুয়ে আছে কেমন করে?

কি হল আজ ভাবছি যখন,
ঠিক তখনি ‘ক্রিং’ টেলিফোন
ধরে শুনি আমার নাকি
বউ ভেগেছে দিয়ে ফাকি!

বিস্তারিত»

প্রতিকার

হাত বাড়ালেই যদি মেলে
গণিকা বা গঞ্জিকা
এমন হলে খবর খারাপ
তোলা তোলে রাজ পেয়াদা।
মানি লোকের মান থাকে না
সত্য বলে বোকা হয়
ধান্দাবাজে ফন্দী খোঁজে
সাদা মগজ ধোলাই হয়।
অল্প বিদ্যা চরম ভাবে
সত্য মিথ্যা জড়িয়ে ভবে
বর্ষে শুধুই বিপর্যয়।
নইকো মোরা আলাদা কেউ
বিশ্বমানব দল থেকে
বাঁচতে এবং বাঁচাতে হবে
বিপদ থেকে বিশ্বকে।

বিস্তারিত»

অাট বাহানা

[ মাদকাসক্তের বাহানা ]

এক

যে ভাবে দিন যায় চলে যাক
তোমরা দেখ পঞ্জিকা
লালন শাহের ভক্ত আমি
সাধন করি গঞ্জিকা।

দুই

দুই এক ছিলিম
টানলে ভায়া
হবে না কেউ রোগী
তার মহিমায়
শিব ঠাকুরে হলেন
মহা যোগী।

তিন

বারাক হুসেন ওবামা
কৈশরতে ছিলিম টেনে
সাথে নিয়ে ভাই ব্রাদার
তিনি বটেন ইয়াঙ্কিদের
হাল জমানার সরদার।

বিস্তারিত»

সবই ভালো, সবাই ভালো

এই দেশেতে সবাই ভালো, সবই ভালো
ফরমায়েশী কবি ভালো
সূর্য কিবা রবি ভালো
রাতের বেলা চাঁদের বুকে
সাঈদী সাবের ছবি ভালো।

হাবুল ভালো, আবুল ভালো
ইসলামাবাদ, কাবুল ভালো
টিএসসিতে নারীর গায়ে
হাতবুলানো বাবুল ভালো।

বিস্তারিত»

সালতামামি ১৪২১

সালতামামি ১৪২১

ঋতুভেদে বাংলাদেশের রুপবৈচিত্র্য কেমন ? প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা থেকে পদ্য বা গদ্য নিয়ে সালতামামি ১৪২১ লেখলে কেমন হয় ? ভেবেছিলাম ১৪২১ বঙ্গাব্দের বৈশাখ মাসে। ওপর আলার রহমতে জ্যৈষ্ঠ, আষাঢ় , শ্রাবণ ভাদ্র, আশ্বিন, কার্তিক, অগ্রহায়ণ, পৌষ, মাঘ,ফাল্গুন , চৈত্র পেরিয়ে অবশেষে পৌছালাম আরেক বৈশাখে । বৈশাখ ১৪২২। বছরের প্রথম দিনেই সালতামামি প্রকাশ করার ইচ্ছা ছিল। কিন্তু আলসেমিতে কাজটা হয়ে ওঠেনি। এদিকে কালবৈশাখী অজুহাতে লোডশেডিং আরও ঝামেলা তৈরী করছে।

বিস্তারিত»

নববর্ষের প্রীতিসম্ভাষণ

বাঙ্গাল কবিয়াল ভনে শোনে পূণ্যবান

আইলোরে আইলোরে নয়া বাঙ্গালা সন

যেসবের ফুল পোঁতা বাঙ্গালার মাটিত

বাঙ্গালার লাগি পুষে বহুত পিরীত

বাঙ্গাল বলিয়া সদা গরবীত হয়

তাহাদের সকলি শুভ হইবে নিশ্চয়

তাহাদেরই তরে মম প্রীতিসম্ভাষণ

নববর্ষে লভ সুখ, ধন ও মান।

 

বিস্তারিত»

সরষে ফুলে মৌমাছি

সরষে ফুলে মৌমাছি

ঝাপসা মোটেই নয়কো বাতাস
মাঘের শীতে কনকনে
রোদের আলোয় পষ্ট বটে
নয়তো মোটেই গনগনে।

আমোদেতেই আছেন তারা
আলসে মোটেই নয়কো যারা
নাই অজুহাত
মাঘ বোশেখে
কাঠফাটা রোদ
কিংবা শীতে
চপল হিমে
কিংবা ঘামে
সদাই যেন চনমনে
জানতে পেলুম গুঞ্জনে।

ফুলে পাতায় জমাট শিশির
হীরের মত ঝলমলে
শীতল হাওয়ায়
ঢেউ খেলে যায়
হলদে সবুজ মখমলে।

বিস্তারিত»

বরিশাল ক্যাডেট কলেজ রিউনিয়ন ২০১৫

ভাইয়েরা, অতি উৎসাহী হয়ে কয়েকটা লাইন লিখে ফেললাম…ভুলত্রুটি ক্ষমার চোখে দেখবেন, আমি কোন বড় লেখক/ কবি নই…ঃ)

(প্রতিটি লাইনের প্রথম অক্ষর মিলায় আমার কলেজের নাম হয়!)
***********************************************************
ব রিশালের বৃষ্টি মাখা, স্নিগ্ধ দিনের ভাঁজে
রি ণিঝিনি হাওয়ার তালে, মাতাল মাদল বাজে।
শা ন্তি আজি তারই মাঝে, খুঁজছে কোলাহল
ল ক্ষ্য পানে আসছে ছুটে বাঁধন ছেড়ার দল!

 

বিস্তারিত»

ছড়া

১ দ্যাশরে বালা পাই,

আও পোয়ারা আও পুরিরা দ্যাশরে বালা পাই,
দ্যাশরে লইয়া দুই চোখ ভরিয়া স্বপ্ন দেখিয়া যাই।
দ্যাশটা আমরার অনেক আপন কিতা যে তার দাম,
পাইলাম তুকায়া পরানের দামে বাংলাদেশের নাম।
এ দ্যাশ আমরার অনেক প্রিয় প্রিয় মাদানের রোদ,
বাংলায় মাতি আও রাখি মনো চেতনাবোধ।

২ বাংলাদেশের মাডি মোগো

বেইন্না কালে নিশির ঢোলে কাডাল পাতার গায়,

বিস্তারিত»

হিমপাত

হিমপাত

সাদা আঁধার মেঘ ঠাসা
হিম চুমে শীত ঘুমে
ডুব দেয় থারমো পারা।

Winter Falls

Down came the clouds
With arctic touch
Winter falls.

শীতে

বাঘে কাঁপে মাঘের শীতে
মেঘে নেমে এলো মাটিতে
খলসে পুঁটি মাছের ঝোল
জমে গেল বাটিতে ।

বিস্তারিত»