থাকবে কেমন করে?

থাকবে কেমন করে?

আমাকে সুদূরে ঠেলে
চলে যেতে পারো দূরে,
অভিযোগ না করেই
আমিও চলে যাবো সরে।
জানতে একটু ইচ্ছে করবে
একলা তুমি থাকবে কেমন করে?
থাকবে কেমন করে?

যতদূর চলে গেলে
দূরে যাওয়া বলা যায়,
ততদূরে চলে যাওয়া
কখনো কি শোভা পায়?
জানতে একটু ইচ্ছে করবে
একলা তুমি থাকবে কেমন করে?

বিস্তারিত»

লেখা আহবান

সাহিত্য পত্রিকা ধাবমানের জানুয়ারি ২০১৮ সংখ্যার জন্য আমরা সকল লেখক, লেখিকা এবং পাঠকদেরকে মৌলিক, অপ্রকাশিত লেখা পাঠানোর জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।

ভাষা –  বাংলা অথবা English

ধারা – ছোট গল্প এবং প্রবন্ধ (~১০০০ শব্দ), মজার অভিজ্ঞতা (~৩০০ শব্দ), কবিতা (~১০০ শব্দ)

জমা দেবার শেষ তারিখ – ডিসেম্বর ৩১, ২০১৭

পাঠানোর ঠিকানা – সম্পাদক, শুজা রশীদকে ইমেইল করুন (srshuja@hotmail.com)

ওয়েবসাইট –

বিস্তারিত»

উপেক্ষিতার সম্ভ্রম

ফুলের দোকানে সেদিন খুব ভিড় ছিল,
ফুলপ্রেমী ক্রেতাদের আনন্দোচ্ছ্বাস ছিল।
সুশোভিত, সুঘ্রাণ, সতেজ ফুলের মাঝে
পেছন সারিতে ছিল এক বাসি ফুল লাজে।

কারো কারো দৃষ্টি ছিল শুধু রঙের উপর,
কেউবা খুঁজেছিল কিছু গোলাপ মনোহর।
কেউবা মৃণাল হাতে শুভ্র রজনীগন্ধার,
স্মিতমুখে কিনেছিল প্রিয়ার উপহার।

দিনশেষে অবশেষে এলেন এক ঋষি,
পেছন সারিতে এসে তিনি হলেন খুশী।

বিস্তারিত»

অন্তর্জালে মগরাজ্য

সেপ্টেম্বর/২০১৭ থেকে রোহিঙ্গা সমস্যা আমার মগজের বেশ কিছুটা দখল করে নিয়েছে।রোহিঙ্গা শরনার্থীদের ঢল, তাদের দুর্দশা টিভি আর দৈনিক সমূহে দেখে মনে হল বিষয়টি বার্মা কি ভাবে দেখছে জানা দরকার।আমাদের বন্ধু রাষ্ট্রগুলোই বা কেন বার্মাকে সমর্থন করছে? তখন থেকে মাঝে মাঝে বার্মা এবং রোহিঙ্গা বিষয়ে জানার জন্য অন্তর্জালে ঘোরা শুরু করি।টুইটারে কিছু বার্মিজের প্রোপাগান্ডা দেখলাম। একটি স্ক্রীন শট-

মায়ানমারের সরকারি ওয়েবসাইট বলছে বাঙ্গালিরা তাদের নিজেদের ঘরবাড়িতে নিজেরাই আগুন দিয়েছে যাতে মনে হয় রাখাইনরা আগুন দিয়েছে।একজন মন্ত্রী কফি আনান জাতিসংঘ মহাসচিব থাকাকালে আফগানিস্তান সমস্যার সমাধান করতে পারেনি তা উল্লেখ করে বলেছে আনান কমিশনের রিপোর্ট এর সুপারিশ তারা মানবে না।অংসান সুচির আপত্তিতে কফি আনান তার কমিশনের রিপোর্টে রোহিঙ্গা শব্দ ব্যবহার করতে পারেন নি তা তো সবাই জানে।

বিস্তারিত»

ভর্তি যুদ্ধ

( বড় লেখা মানুষে পড়তে চায় না, অথচ আমার লেখা রাবারের মত বড় হয়ে গেছে । ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি ।)

 

Bangladeshi-All-Public-University

জ্ঞান দিতে পয়সা লাগে না । তাই সকলেই আমরা ফ্রি ফ্রি জ্ঞান দেই । জ্ঞান বিতরণ করে ভালো টাকা কামানোর পথও আমার জন্য বন্ধ । সোশ্যাল মিডিয়াই তাই আমার কষ্ট বুঝলো ।

নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের প্রথম সারির দুইটি লোভনীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ।

বিস্তারিত»

কুংফু কারাতে

বাংলাদশের এমন কোন ছেলে আছে কিনা যে ফুটবলের পেলে আর মার্শাল আর্টের Bruce Lee র নাম শোনে নি কিংবা জীবনের কোন একটা সময়ে মনে মনে তাদেরকে দেবতা জ্ঞান (আক্ষরিক অর্থে নয়) করে নি তাতে আমার সন্দেহ আছে। অন্তত পক্ষে আমি যখন ঢাকায় আমার বাল্যকাল কাটাচ্ছি মাঠে ঘাটে মার্বেল, ডাঙ্গুলী আর ফুটবল খেলে তখন অবস্থা সেই রকমই ছিল।

মার্শাল আর্টের প্রতি সব সময়েই আমার একটা দূর্বলতা আছে।

বিস্তারিত»

মতিউর রহমান স্যার

আজকে কেন জানি হঠাৎ অংকের মতিউর রহমান স্যারকে বারবার মনে পড়ছে। একেবারেই কাদামাটির অন্তর, প্রাতঃস্মরণীয় মানুষ, পরম শ্রদ্ধেয় একজন মানুষ। আমাদেরকে তিনি নিজের সন্তানদের মতই দেখতেন।

স্যারের একটা অদ্ভুত অভ্যাস ছিল। কোন একজনকে ধমক দিতে হলে তিনি বলতেন, “ইডিয়েটস!”, আর একাধিক জন হলে বলতেন “ইউ ইডিয়েট!” গনিতের লোক বলেই বোধহয় গ্রামারের নাম্বারকে খুব একটা তোয়াক্কা করতেন না। তাঁর একটি কথা আমার মাথায় আজও ঘোরে (এবং আমি সবসময় অনুসরণ করার চেষ্টা করি) সেটা হল,

বিস্তারিত»

কুটিলা মুড়া – কুমিল্লা

আমরা আমাদের আদিমতম সমাজবদ্ধ জীবনে শুদ্ধ প্রকৃতির কোলঘেঁষে কি অকৃত্রিমই না ছিলাম। অরণ্য ছিল আমাদের বিচরনভূমি, গুহা কিংবা গাছের কোটর ছিল আশ্রয়স্থল। আমাদের সংস্কৃতি ছিল খাদ্য সংগ্রহ করা – গাছের ফল আর পশু শিকারই ছিল খাদ্যের উৎস। তখনও আমরা খাদ্য উৎপাদনকারী নই। গাছ থেকে ফলমূল আর পশু থেকে মাংস আহরনের মধ্য দিয়ে আমরা উপলব্ধি করলাম যে আমরাও ঐসব গাছপালা আর জীবজন্তু থেকেই উৎপন্ন, ওসব আমাদের সাথে একাত্মা।

বিস্তারিত»

বিনয়ীরাই বিজয়ী

“You must be humble, as it is one of the greatest [forms of] worship.”
-হযরত আলী (রা)

জার্মানির বন শহরে সুরসম্রাট বিটোভেন-এর বাড়ি। তার মৃত্যুর পর সেই বাড়িটিকে জাদুঘরে রূপান্তরিত করা হয়। জাদুঘরের একটি ঘরে রাখা আছে সেই মহামূল্যবান পিয়ানো যা দিয়ে বিটোভেন সৃষ্টি করেছিলেন অমর সব রাগ।

একবার সেই জাদুঘর পরিদর্শনে এলো লিবারেল আর্টসের জন্যে বিখ্যাত মার্কিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভাসার কলেজের একদল শিক্ষার্থী।

বিস্তারিত»

মানুষ বনাম অমানুষ

মানুষ বনাম অমানুষ

আমাকে আমার চেয়ে বড় করে দাও হে প্রভু
এ পথ থেকে আমায় ফেরাও।।।।

মানুষ হয়েও আমি বড় অমানুষ
চাই না হতে আমি আবারও মানুষ।।

আজীবন অমানুষ তাদেরই বলে
অমানুষ থেকে যারা রয় অমানুষে।

মানুষ থেকে যারা হয় অমানুষ
ঘৃণ্য সবাই তারা হলেও মানুষ।

কথা: বাপ্পী খান
সুর: আইউব বাচ্চু
এ্যালবাম: সুখ LRB

ফেসবুক মন্তব্য

বিস্তারিত»

সব অশ্রুফোঁটা জল নয় জোলোও নয়

সব অশ্রুফোঁটা জল নয়, জোলোও নয়।
কিছু কিছু ফোঁটা উঠে আসে
জলের নীচে ডুবে থাকা বর্ণহীন ভারী তরল থেকে।
ছোটবেলায় রসায়নে শেখা এইচটুও নয়, এইচটুওটু।
যেন জলের চেয়ে ভারী হাইড্রোজেন পারোক্সাইড।

কিছু কিছু অশ্রুফোঁটার জন্মই হয়
নীরবে নিঃশব্দে ঝরে পড়তে,
নিভৃতে, গোপনে, অন্ধকারের বিষণ্ণতায়।
সৌম্যতায়, মৌনতায়, ঐকান্তিকতায়।
নিবিড় স্মৃতির প্রতিবিম্বে, একান্তে, বিবিক্তবাসে।

কেউ সেসব ঝরে পড়ার সাক্ষী হতে পারেনা।

বিস্তারিত»

হে নারী আর তোমার “বিবর্তন” বাবা ঃ

নারীর ঐশ্বরিক সৌন্দর্য, পেলব কমনীয়তা আর মায়াবী কণ্ঠস্বর এ সবকিছুই আবহমান কাল ধরে চলে আসা অন্ধ “বিবর্তন” বাবার এক নৈসর্গিক ফাঁদ। পুরুষ এর শরীরে একগাদা জীনের বহর কে নিজের দেহাধারে পুরে দেওয়ার জন্য জ্ঞানলোপকারী খাঁজ ভাঁজের সৃষ্টি ; এত সুড়সুড়ি দেওয়া স্বচ্ছ, সূক্ষ্ম, স্বল্প ,কাম জাগানো পোশাকের আসর ও বাসর।
সম্মোহনকারী রুপ,তার উপরে প্রসাধন সামগ্রীর শ্বেতকারিনী স্তর, ওই মায়াবিনী মন মাতানো হাসি পুরুষকে প্রলুদ্ধ করার জন্য কৌশলী এবং ধূর্ত মায়ার সমাহার,

বিস্তারিত»

প্রেমের সংজ্ঞা

প্রেমের সংজ্ঞা।

এটাতো একলা একটা হৃদয়; কোন মহাকাশ নয়,
ছোট ছোট অভিমান; সুখ জাগানীয়া নয়।
তারপরেও সুযোগ আসে; হিয়ার চতুরতায়,
সত্যি প্রেমের প্রলাপ শোনে; মনের বর্বরতায়।
প্রেমের সংজ্ঞা কে দিতে পার
আমিতো পারিনা মোটে,
তুমি যদি পারো বলনা আমায়
কপালেতে যদি জোটে।।

যতদিন যায় ততবেশী দেখি; নতুনের রং পেলব,
মানেনা কিছুই ঘর সংসার;

বিস্তারিত»

বাগের হাট আর ষাট গম্বুজ মসজিদ ভ্রমণ


গত সপ্তাহে কোন এক ট্রাভেলারের ষাট গম্বুজ ভ্রমনের পোস্ট দেখে চলে গিয়েছিলাম একদিনের জন্য #বাগেরহাট আর খুলনায়। সংক্ষেপে তাই শেয়ার করবো আজকে।

href=”http://www.cadetcollegeblog.com/wp-content/uploads/2017/12/DSC00309-1.jpg”>

খুলনা থেকে ১ দিন সময় নিয়ে গেলে আপনি দেখতে পারবেন
১। ষাট গম্বুজ
২। Khan Jahan Ali মাজার
৩। চন্দ্রমহল
৪। রুপসা সেতু

আর হাতে যদি দুই দিন সময় থাকে তাহলে বিকেলের দিকে মংলা চলে যেতে পারেন।

বিস্তারিত»

সবই এক

কোথাও কোন অমিল নেই,
না আমাতে, না তোমাতে,
না বাংলায়, না ভারতে।

পাইনি অমিল
না হিন্দুতে, না খ্রিস্টানে,
না বাইবেল, না কোরানে।

সবই এক
পুরুষ কিবা নারীতে,
জটা চুলে কিবা দাঁড়িতে।

নেই, কোন পার্থক্য নেই
তেল, জল কিবা প্রোটিনে।
নিউট্রন, ইলেকট্রন, প্রোটনে।

মাইরি সবই এক
দাদা কিবা ব্রাদারে।

বিস্তারিত»