ডঃ গওহর রিজভী

রুলস অফ বিজনেস ‘৯৬ আইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার আন্তজাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন ডঃ গওহর রিজভীকে। সাধারনত রাজনীতিবিদ অথবা প্রাক্তন সচিবদেরই এইসব উপদেষ্টা নিয়োগ দেয়া হয়, যার সংখ্যা এখন পর্যন্ত সাত , তবে ডঃ গওহর রিজভী এক্ষেত্রে অনেক দিক দিয়ে ব্যতিক্রম। একজন অভিবাসী, এবং খুবই হাই প্রোফাইল ক্যারিয়ার, যার রয়েছে অক্সফোড, ওয়ারউইক, হার্ভাডে পড়ানোর কিংবা ফোর্ড ফাউন্ডেশনে উচ্চ পদে চাকরির অভিজ্ঞতা।

আমরা গর্বিত হতে পারি কারন তিনি একজন প্রাক্তন ফৌজিয়ান। (তথ্যের জন্যে এখানে Old Faujians অংশ দেখুন )। ভার্জিনিয়া ইউনিভার্সিটির ভাইস-প্রভোস্ট ডঃ রিজভী একজন পুরো মন্ত্রির স্ট্যাটাস উপোভোগ করবেন। স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়ায় এই রাষ্টবিজ্ঞানী নিজেও বলেছেন, দেশের জন্য কাজ করতে চাই।

চিয়ারস ফর ক্যাডেটস . . .

২,৮৬২ বার দেখা হয়েছে

৬০ টি মন্তব্য : “ডঃ গওহর রিজভী”

  1. যাক সরকারের বুদ্ধি হইছে একটু-- যারে তারে পররাস্ট্র বিষয়ে আর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক সংক্রান্ত বিষয়ে দিলে যে দেশের জন্য ভালো না......... :-? :-? :-?

    চিয়ার্স ফর ক্যাডেটস...
    চিফ অফ আর্মি স্টাফ,
    বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর,
    প্রধানমন্ত্রীর আন্তজাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা.........

    ভালোই।
    :)

    জবাব দিন
  2. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    ড. গওহর রিজভী বিহারী বাংলাদেশী। তাদের পুরো পরিবার মুক্তিযুদ্ধ পূর্ব, মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধোত্তরকালে বাংলাদেশের প্রতি শুধু আনুগত্যই নয়, কাজও করেছেন। দুদিন আগে একজন বড় ভাইয়ের (নামটা উহ্য রাখলাম) কাছে গল্প শুনছিলাম ড. রিজভীর এক বড় ভাই সম্পর্কে।

    ড. রিজভীর ওই ভাই উড়োজাহাজের পাইলট ছিলেন। অবাঙালি হওয়ায় স্বাধীনতার পর তাকে ফ্লাইট না দিয়ে বসিয়ে রাখা হয়। চাকরি থাকবে কিনা এ অবস্থা। বঙ্গবন্ধু একদিন টুংগিপাড়া যাচ্ছেন। বিমানবন্দরে সহকর্মীরা সিনিয়র রিজভীকে বঙ্গবন্ধুর সামনে ঠেলে দেয়। বঙ্গবন্ধু তাকে দেখে কাছে টেনে নেন। জানতে চান, রিজভী তুই এখন কি করছিস? রিজভী বললেন, তাকে বসিয়ে রাখা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু জানতে চাইলেন কে তাকে কাজ না দিয়ে বসিয়ে রেখেছে এবং বললেন, "জানিস ও তোদের অনেকের চেয়ে বড় বাঙালি। কাল আমি টুংগিপাড়া থেকে ফিরবো। রিজভী তুই আমাকে নিয়ে আসবি।"

    গল্প শুনতে শুনতে শুধু রিজভী না, বঙ্গবন্ধুর জন্যও ভীষণ মায়া লাগলো। মানুষটা এতো বড় মনের ছিলেন, এতো বড় বুক ছিল তার- সেটাই তার জন্য কাল হলো। দোষেগুণে মানুষ ছিলেন। দেবতা ছিলেন না। কেউ কেউ তাকে দেবতা বানায়। অন্যরা তাকে শয়তান বানানোর অপচেষ্টা করে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু আসলে একজন অসাধারণ নেতা ছিলেন। ভুলও করেছেন। সেজন্যই জীবন দিয়ে তার প্রায়শ্চিত্ত করেছেন।

    বঙ্গবন্ধু নিয়ে শোনা আরেকটা গল্প শেয়ার করি। মুজিবুল হক সিএসপি। স্বাধীনতার পর তিনি মাঝারি কাতারের কর্মকর্তা। একদিন দুপুরে বঙ্গবন্ধু ডেকে পাঠালেন। একটা কাজ দিয়ে বললেন, করতে হবে। মুজিবুল হক বললেন, স্যার এটা করা যাবে না। আইনে পারমিট করে না। বঙ্গবন্ধু বললেন, "আমি প্রধানমন্ত্রী, আমি বললেও করা যাবে না, এমন কাজ আছে? এটা সম্ভব? এটা করো।" মুজিবুল হক বললেন, "স্যার, প্রধানমন্ত্রী বললেও এটা করা যাবে না।" শুনে বঙ্গবন্ধু চুপ করে বসে থাকলেন। মুজিবুল হক ভয়ে ভয়ে চেয়ার ছেড়ে উঠে দরজা দিয়ে বেরুতে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধু আবার ডাক দিলেন, "মুজিবুল হক কৈ যাও? আমার সঙ্গে খেয়ে যাইবা না?"

    শুনে চোখে পানি আটকে রাখতে পারিনি। এমন মানুষটাকে আমরা মেরে ফেলেছি!!


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  3. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)

    গওহর রিজভী ভাইকে :salute: :salute: :salute:


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন
  4. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    আমি এগুলো সমর্থন করি, আমাদের সেরা কাজের লোকগুলো দরকার, সেরা চাপাবাজ নয়।

    শেখ হাসিনা যা করছেন, সিংগাপুর অনেকটা সে রকমই করে। সেরা লোক গুলোকে ধরে এনে বসায়। এটা নয় তিনি রাস্তায় কত জোরে চিল্লাচিল্লি করেছেন, জেলে গিয়েছেন বা পুলিশের পিটা খেয়েছেন। আমাদের দেশে তো এখন এগুলোই মন্ত্রী হবার মাপকাঠি।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
    • কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

      ওফা গ্রুপ মেইল থেকে...

      Dr Rizvi passed from Faujdrahat Cadet College in May, 1965 and was the last batch that was mentored by Late William Maurice Brown. He was a gifted speaker and debater and an inbuilt scholar. His father was the pivotal person in compiling the District Gazettes.

      He belonged to Shahjahan House., later Nazrul bhaban. He went to become the College Captain.

      RIZVI VAI'S RESUME

      In a career of more than 25 years across four continents, Rizvi has combined academic appointments with positions in international organizations, not-for-profit institutions and the media. He originally trained as a social scientist, but is an area studies and development expert.

      His publications have spanned the disciplines of history, politics, international relations and development economics. His books include "South Asia in a Changing International Order," "South Asia Insecurity and the Great Powers," " Bangladesh : The Struggle for the Restoration of Democracy," "Perspectives on Imperialism and Decolonization" and "Lord Linlithgow and India ."

      Rizvi earned a "double first" in B.A. Honors and M.A. from the University of Dhaka in Bangladesh . He earned a D.Phil. at Trinity College , Oxford , where he studied as a Rhodes scholar.

      He taught for nearly two decades at several British universities, including Oxford University , the University of Warwick and St. Anthony's College. He also served as the Asia-Pacific region head for the Oxford Analytical Daily Brief, an Oxford think tank. He is the founding editor of Contemporary South Asia, an academic and policy studies journal published at Oxford .

      Rizvi has also been widely engaged in working to manage conflicts and strengthen democratic institutions and processes in Asia . From 1988 to 1990, he served as special assistant to the United Nations coordinator for Afghanistan , participating in several missions to that country and developing close links with Afghan leaders on both sides of the civil war.

      In 1992, he collaborated with the Royal Institute of International Affairs to organize a high-level Anglo-Iranian Roundtable in order to facilitate direct dialogue between senior officials of the two countries.

      Since 1986, he has also been involved in promoting unofficial contact and dialogue between South Asian leaders, and has both organized and participated in nongovernmental monitoring of elections in Pakistan, Sri Lanka, Nepal and Bangladesh.

      Rizvi joined the Ford Foundation in 1995 as the deputy director for governance and civil society with responsibilities for the foundation's work worldwide. He became the representative to New Delhi in 1998. The New Delhi office, with a grant-making budget in excess of $56 million in 2001, is the foundation's oldest and largest overseas office. Prior to joining the Ford Foundation, Rizvi was the director of contemporary affairs at the Asia Society in New York, the leading public education organization dedicated to increasing American understanding of peoples and cultures throughout Asia.

      Aug. 3, 2008 —He joined as vice provost for international programs at the University of Virginia . Before that he was the director of the Ash Institute for Democratic Governance and Innovation at Harvard University 's John F. Kennedy School of Government,

      Gowher Rizvi, the internationally renowned political scientist now the adviser to PM BD is married to Agnese Barolo. They have one daughter, Maya, a 2008 graduate of Vassar.


      সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

      জবাব দিন
  5. আব্দুল্লাহ্‌ আল ইমরান (৯৩-৯৯)
    চিয়ার্স ফর ক্যাডেটস…
    চিফ অফ আর্মি স্টাফ,
    বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর,
    প্রধানমন্ত্রীর আন্তজাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা………

    :salute: :salute: :salute: গওহর রিজভী ভাইকে
    নিজ়েকেও জ়ানি ক্যামুন ক্যামুন মনে হইতেছে :khekz:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।

:) :( :P :D :)) :(( =)) :clap: ;) B-) :-? :grr: :boss: :shy: x-( more »

ফেসবুক মন্তব্য