জিসান এর মত চাই না মুহিব ভাই আমাদের ছেড়ে চলে যাক

২১ ডিসেম্বর ২০১১ , দিনটা ছিল আমার জীবনে অন্যতম বেদনাদায়ক একটা দিন । এই দিনে আমার কলেজের বন্ধু জিসান ব্লাড ক্যান্সারে মারা যায় । জিসান ছিল আমার কলেজের ভাসানী হাউস এর । ২-৩ দিন আগে ব্যাচ গ্রুপে হঠাৎ নাফিজের পোস্ট দেখে স্তব্ধ হয়েছিলাম অনেক ক্ষণ, কোন কমেন্ট করতে পারিনি । পোস্টটা ছিল আমাদের গাইড ব্যাচ এর মুহিব  ভাই কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত । আবার এই ক্যান্সার এর আক্রমণ ! যে ক্যান্সার প্রায় দেড় বছর আগে কেঁড়ে নিয়েছিল আমার বন্ধুকে । বন্ধু বিয়োগের সেই কষ্ট আমরা এখনো বয়ে বেড়াই । আমি আমার সেই বন্ধুর কবরে যেতে পারিনি কিন্তু যারা গিয়েছিল তারা এখনো ভুলতে পারেনি ছেলে হারানোর শোকে জিসান এর বাবা মায়ের আহাজারি । কোন বাবা মা চায় না তার ছেলে অকালে মারা যাক । জিসানকে হারিয়ে আমরা যে কষ্ট পেয়েছিলাম, আমরা চাই না  সেই কষ্ট আমাদের গাইড ব্যাচ এর ভাইয়েরা পাক ।

মুহিব ভাই আমাদের গাইড ব্যাচ এর । বাবা মা ছেড়ে কলেজে আসার পর আমাদের গাইড ব্যাচ কে আমরা অভিভাবক হিসেবে পেয়েছি । যে গাইড ব্যাচেরা বড় ভাইয়েরা  আমাদের জন্য কাবার্ড সাজিয়েছেন , আদরে কিংবা শাসনে আপন বড় ভাই এর মত আমাদের সাথে আঠার মত লেগে থাকতেন , হাতে ধরে মসজিদে, হাউসে, ডায়নিং হলে নিয়ে যেতেন , পরম মমতায় শিখিয়ে দিতেন কিভাবে কাটা চামচ দিয়ে খেতে হয়, বাবা মায়ের কাছে চিঠি লিখতে বলতেন, রাতে ঘুমনোর আগে স্লিপিং ড্রেস পড়তে বলতেন, সকালে ঘুম থেকে ডেকে দিতেন , পরীক্ষায় খারাপ করলে বকা দিতেন, পরীক্ষায় কিভাবে ভাল করতে হয় শিখিয়ে দিতেন , নভিসেস ড্রিল এর আগে প্রায় সারারাত ঘুম বাদ দিয়ে আমাদের জন্য জুতায় ওয়াটার পালিশ করে দিতেন । সেই গাইড ব্যাচ এর কোন এক বড় ভাই এর ক্যান্সার হয়েছে শুনে মনে হল নিজের বাবা মায়ের ক্যান্সার হয়েছে । কারণ তারা তো আমাদের কলেজে নিজের বাবা মায়ের মতই শাসনে আদরে বড় করে   তুলেছেন ।

মুহিব ভাই বাংলাদেশের সেরা বিদ্যা পীঠ বুয়েটের নেভাল আর্কিটেকচার এন্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র । এখনো মনে পরে কলেজ থেকে বের হয়ে বুয়েটে কিভাবে চান্স পাব এই নিয়ে মুহিব ভাই এর সাথে ফোনে কথা বলেছিলাম ।এখন  মুহিব ভাই এর ব্যস্ত থাকতে হত বিভিন্ন প্রোজেক্ট নিয়ে, উচ্চ শিক্ষার জন্য কিভাবে আমেরিকা, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া ইত্যাদি দেশে যাবেন, কিভাবে IELTS, GRE করবেন , ভবিষ্যতে বাংলাদেশে অথবা বিদেশে কোন কোম্পানিতে জব করবেন, কোন পেপারে নিজের গবেষণা প্রকাশ করবেন, কিভাবে ভবিষ্যতে একজন বিজ্ঞানী হওয়া যায় , কিভাবে বাবা মার সেবা করবেন এইগুলো  নিয়ে চিন্তা ভাবনা করতে। সেই মুহিব ভাই এখন ক্যান্সার এর সাথে যুদ্ধ করছেন ।

ওহে ক্যান্সার তোমার পাবনা ক্যাডেট কলেজের সাথে কিসের শত্রুতা ? আমাদের জিসানকে অতর্কিত ভাবে নিয়ে তোমার শান্তি মেটে নি ? জিসান কে নিয়েছ বলে ভেবেছ আমাদের মুহিব ভাই কে এত সহজে আমাদের কাছ থেকে কেঁড়ে নিতে পারবে? পারবেনা । বুয়েট এর ছাত্র-ছাত্রীরা  তোমাকে সফল কাম হতে দিবে না,বাংলাদেশের প্রতিটা বিশ্ববিদ্যালয় এর ছাত্র- ছাত্রীরা  তোমাকে সফলকাম হতে দিবে না,  বাংলাদেশে এবং প্রবাসে  আনাচে কানাচে  ছড়িয়ে থাকা ক্যাডেট বড় ভাই, বড় আপু, ছোট ভাই, ছোট আপু তোমাকে সফলকাম হতে দিবে না ।বাংলাদেশের প্রতিটা মানুষ তোমার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে । বাংলাদেশের মানুষ মেধার কদর দিতে যানে। তারা ছিনিয়ে আনবে তোমার কাছ থেকে আমাদের মুহিব ভাইকে । মুহিব ভাই আবারও ফিরে আসবেন আমাদের মাঝে । ফিরে আসবেন কলেজের ভলিবল, বাস্কেট বল, ফুটবল গ্রাউন্ডে দাপিয়ে বেরানো আমাদের মুহিব ভাই । তিনি ফিরে আসবেন, ফিরে উনাকে আসতেই হবে ।

” মানুষ মানুষের জন্য ।দয়া করে একজন মৃত্যুপথ যাত্রি মানুষ কে সাহায্যের জন্য সবাই এগিয়ে আসুন ।”

মুহিব ভাই  এখন ইউনাইটেড হাসপাতালে কোলন ও রেক্টাল সার্জন অধ্যাপক ডা. জাহিদুল হক এর অধীনে চিকিৎসাধীন। তার উন্নত চিকিৎসার জন্য যতদ্রুত সম্ভব তাকে সিঙ্গাপুর নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। উনার জন্য সহযোগিতায়-

PAYPAL : abdulhmollah@gmail.com

 

bkash Account: 01816111200 (personal)

 

Trust Bank Ltd.: Nur Mohammad

A/C No: 0029-0310015861

 

AB Bank Ltd.: Md. Mehedi Hasan

A/C No: 4026-384366-300

 

BRAC Bank Ltd.: Md. Hasan Mahmud

A/C No: 1532202001766001

 

Dutch Bangla Bank Ltd: Sarab Mehnaj Choity

A/C No: 0126105000175031

 

বিস্তারিত জানতে : ০১৮১৬১১১২০০(নূর), ০১৬৮৭৮৮৩৮৯৪ (মনির), ০১৬৭৮৬১২১১৮ (আবিদ)

 

 

 

 

 

 

 

 

 

৭৬৮ বার দেখা হয়েছে

২ টি মন্তব্য : “জিসান এর মত চাই না মুহিব ভাই আমাদের ছেড়ে চলে যাক”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।

:) :( :P :D :)) :(( =)) :clap: ;) B-) :-? :grr: :boss: :shy: x-( more »

ফেসবুক মন্তব্য