খাঁচার পাখি কেন গায়?

[ আই নো হোয়াই দা কেজ্‌ড বার্ড সিঙ্গস- মায়া এঞ্জেলোর কবিতার অনুবাদ]

বনের পাখি ঝাঁপ দেয়
চড়ে বসে বাতাসের পিঠে
ভেসে চলে প্রবাহের
শেষ সীমায়
ডানা ঝাপ্টে ঝেড়ে ফেলে
গোধুলির আলো
যেন আকাশটা তারই।

কিন্তু যে পাখি বন্দী
খাঁচার নিষ্ঠুর শিকের
ফাঁক দিয়ে সে তো
বলতে গেলে বাইরের
কিছুই দেখতে পায় না
তার পাখা ছাঁটা
পা শিকল দিয়ে বাঁধা
গলাটাই শুধু মুক্ত
তাই গলা বের করে
সে গান গায়।

খাঁচার পাখি গান গায়
অজানা কোন শঙ্কায়
কাঁপা কাঁপা গলায়
দূর পাহাড়ের চূড়ায়
শোনা যায় সেই গান
যে গান মুক্তির।

বনের পাখি ভাবে
লাভের বাতাস আসবে
গাছের সারির মাঝ দিয়ে
আর মোটা তাজা পোকাগুলো
খাদ্য হবার অপেক্ষায় রয়েছে
যেন তারই আকাশ থেকে
দেখতে পায় সে।

কিন্তু খাঁচার পাখি দাঁড়িয়ে
তার স্বপ্নের কবরের কাছে
ছায়া তার কাতরে ওঠে
দুঃস্বপ্নের দুঃসহ যন্ত্রনায়
শৃঙ্খলিত পদযুগল
ডানা ছাঁটা
স্বাধীন শুধু তার কণ্ঠ
সেই কণ্ঠে সে গায়
স্বাধীনতার গান
বহুদূর থেকে শোনা যায়
কাঁপা কাঁপা গলায়
সেই গান যে গান মুক্তির।

৩,৯৩৪ বার দেখা হয়েছে

১৬ টি মন্তব্য : “খাঁচার পাখি কেন গায়?”

  1. সাইদুল (৭৬-৮২)

    বনের পাখি বলে , ‘ আকাশ ঘননীল ,
    কোথাও বাধা নাহি তার । '
    খাঁচার পাখি বলে , ‘ খাঁচাটি পরিপাটি
    কেমন ঢাকা চারি ধার ।

    অনুবাদে কবিতার স্বাদ পেলাম


    যে কথা কখনও বাজেনা হৃদয়ে গান হয়ে কোন, সে কথা ব্যর্থ , ম্লান

    জবাব দিন
  2. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    মোস্তাফিজ ভাই,
    অনুবাদ দুর্দান্ত হয়েছে। আমার মনে হয়, আপনার ভাষা এবং ভাবনার কিছুটা এ লেখাকে শুধুই অনুবাদ করে রাখেনি। কবিতাটা যে আপনার অন্তরে প্রোথিত হয়ে গেছে তা উপলব্ধি করলাম -- এ উপলব্ধি করলাম সাধারণ আর সাদামাটা শব্দবাক্যেও উৎকৃষ্টতম কবিতারচনা হতে পারে। বিশেষত

    কিন্তু খাঁচার পাখি দাঁড়িয়ে
    তার স্বপ্নের কবরের কাছে
    ছায়া তার কাতরে ওঠে
    দুঃস্বপ্নের দুঃসহ যন্ত্রনায়

    এ লাইনগুলো এত ভালো, এত সুন্দর!

    জবাব দিন
  3. মাহবুব (৭৮-৮৪)

    এঞ্জেলোো নিজেও খুব সহজ সাদা মাটা শব্দে লিখে থাকেন যদিও বানী মর্মভেদী। ওঁর উপরে একটা নিবন্ধ পড়েছিলাম খবরের কাগজের সাহিত্যপাতায়। সাবাশ মোস্তাফিজ!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।

ফেসবুক মন্তব্য