দিনলিপিঃ আতকা আড্ডা

কয়েকদিন ধরে অফিস খুব বোরিং লাগতেছিলো। একই কাজ, একই রুটিন।ধুর। এটাও কোনো জীবন। আজকে হঠাত বিকাল বেলায় মেজাজ খুব খারাপ লাগতেছিলো। ধুর আর অফিস করে ভালো লাগতেছিলো না।একটু রিলাক্স দরকার। কামরুলকে ফোন দিলাম কই তুই? জানালো সে বাসায়। বললাম “এক ঘন্টার মাঝে আড্ডা দিতে চাই। এক কাজ কর। ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে চলে আয়”। বল্লো “ঠিক আছে আয়।”
আমি অফিস থেকে বের হলাম সন্ধ্যা সাত টায়।রওয়ানা হলাম ক্যাডেট কলেজ ক্লাবের উদ্দেশে। এও মাঝে ফোন দিলেন নাফিজ ভাই (৯২-৯৮/ককক)।
জিজ্ঞাসা করলেনঃ “কই তুমি? আড্ডা দিবা ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে?”
আমিঃ”ক্লাবের কোথায়?”
নাফিজ ভাইঃ”বারে চলে আসো”
আমিঃ “আপনি যদি বিল দেন এখনি আসতেছি।।”
নাফিজ ভাইঃ “চলে আসো”।
যাক, বিল নিয়ে চিন্তা গেলো।
কামরুল কে ফোন দিলাম “কই তুই?”
কামরুলঃ এইতো বনানী। তুই?
আমিঃ “এইতো বনানী তে।তুই আয়, আমি ক্লাবের সামনে দাড়ালাম”।
ফোন দিলাম কাইয়ূম ভাই কে। “কই আপনি?ক্লাবে চলে আসেন আড্ডা দেই।”
কাইয়ূম ভাইঃ “এই মাত্র বের হয়ে বাসায় আসলাম। আর আমি বারে এসে কি করবো? কিছু তো খাই না”
আমিঃ “আরে খাওয়া লাগবেনা, আসেন আড্ডা দেই”
কাইয়ূম ভাইঃ “ঠিক আছে আরেকদিন।”
তারপর তানভীর কে ফোন দিলাম। না সেও বাসায় চলে গেছে
ক্লাবের সামনে গিয়ে দাড়ালাম। একটু পরেই কামরুল আসলো।দুই জনে গিয়ে বারে বসলাম। আমি আবার মেম্বার না। তাই গেষ্ট কার্ড নিতে হলো।
বারে ঢুকেই নাফিজ ভাই এর সাথে দেখা। উনার আবার কিছু গেষ্ট ছিলো। তাই উনার পাশের টেবিলে বসলাম।
দুই মিনিট পরেই দেখি একি আমাদের অতি পরিচিত তাইফুর ভাই হাজির।
ভাই আপনি এখানে?
তাইফু ভাইঃ”আমি তো প্রায়ই আসি”
আমিঃ আর ব্লগে তো দেখিই না আপনাকে।
তাইফু ভাইঃ”আর বলিস না। যখনি ল্যাপ্টপ টা অপেন করতে যাই সিসিবি এর জন্য তখনি অফিসের কাজ হাজির।”
কামরুলঃ একটু পরেই দেখবি সানা ভাই আসবে সাতার কাটতে।
আমিঃ রোজ আসে?
কামরুলঃ মোটামুটি।
তারপর আর কি আমি কামরুল, তাইফুর ভাই এক জম্পেশ আড্ডা দিলাম সিসিবি নিয়ে। উনি আবার জানালেন ভাবি সাত দিনের জন্য বাসার বাইরে।
আমন্ত্রন জানালেন উনার বাসায়।
এইভাবে আতকা এক জটিল আড্ডা হয়ে গেলো ক্যাডেট কলেজ ক্লাবের বারে।
রাত ৮.৩০ এ তাইফুর ভাই চলে গেলেন। তারপর আমি আর কামরুল আমাদের বিল টা নাফিজ ভাই এর উপর চাপিয়ে দিয়ে বের হয়ে আসলাম ক্লাব থেকে।
যাক এখন থেকে মনে হয় নিয়মিত আড্ডার আরেকটা জায়গা পাওয়া গেলো।

|

১৩ টি মন্তব্য : “দিনলিপিঃ আতকা আড্ডা”

  1. “এই মাত্র বের হয়ে বাসায় আসলাম। আর আমি বারে এসে কি করবো? কিছু তো খাই না”

    জাতির অবগতির জন্য জানানো হচ্ছে যে, এই মাত্র বাসায় আসলাম বলার পরের লাইনটি রবিন নিজে নিজে লাগাইছে :mad: :mad: :mad:
    যদিও বক্তব্যের বিষয় সঠিক ;;;


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।

:) :( :P :D :)) :(( =)) :clap: ;) B-) :-? :grr: :boss: :shy: x-( more »

ফেসবুক মন্তব্য