আজেবাজে গল্প

( এই গল্পের কিছুটা সত্য আর বেশিটা মিথ্যা । তবে এই ব্লগের রেজিষ্ট্রার্ড সদস্য নয় এমন কোন ক্যাডেট এর সাথে নিজের কোন মিল খুজে পেলে ব্লগার দোষী থাকবেন না ;) )
আমি, কবি রিফাত আর সেলিম এই তিন বান্দা, অদ্ভূত আমাদের এই ছোট দল। সারা দিন যেখানে থাকি না কেন সন্ধ্যার সময় টিএসসির সামনে গোল চত্বরে আমরা আসবই।পরিচিত সবাই অবাক হয় আর ভাবে এই তিন আলাদা চরিত্রের লো্ক কিভাবে এক হলো। আলদা হলেও আমাদের একটা জিনিসে বড় মিল, আমরা সবাই প্রেম সন্ধানি। আমি- যার ভাবনা হল সত্য প্রেম একবারি আসে, কবি- ঘনঘন প্রেমে পরা যার স্বভাব। আর মহামতি সেলিম- বাইরে যে প্রেম বিদ্বেষী অন্তরে প্রেম পিয়াসি। সেই মহান প্রেম এর জন্য রোকেয়া হল এর কোনায় আমাদের চিরচেনা আড্ডা ।

তবে আমদের জীবনে প্রেম আসে কিন্তু রোকেয়া হল থেকে না বরং ডিপারর্টমেন্ট থেকে, আর আশ্চার্যজনক হল আমরা তিন জনই পরলাম সেই প্রেমে । যে সে না ডিপারর্টমেন্টের সেরা সুন্দরী রিমি আপুর প্রেমে । ক্লাসের বাইরে তাকে দেখে হিন্দি সিনেমার মত মনে হয় সময় থমকে দাড়াল আর থমকে দাড়ালাম আমরা তিন জন, ব্যাকগ্রাউন্ডে বেজে উঠল মিউজিক । খুব সম্ভবত আমরা তিন জন এক সাথেই ঠিক করলাম এর সাথেই প্রেম করবো কিন্তু আফসোস আমরাতো আর পঞ্ছ পান্ডব না আর রিমি আপু ও তো আর দৌপদ্রী না যে তিন জন এক সাথে প্রেম করব। সুতারাং আমরা সবাই যে যার মত চেষ্টা শুরু করলাম। হাস্যকর সে চেষ্টা, কিন্তু প্রাণান্তকর তার শ্রম। জীবনে যে আমারা কোনদিন ক্লাস এর কোন মেয়ের সাথে কথা বলার সাহস করতে পারিনি তারা কিনা সিনিয়র আপুর সাথে কথা বলার জন্য হয়ে উঠলাম মরিয়া। আপু ভাল ছাত্রী তাই আমি নোট নেওয়ার উছিলায় তার সাথে খাতির করে ফেললাম। কবি লিখে ফেললো অমর কবিতা….হৃদয়ে জাগাতে চাই বেদনা…………আর সেলিম বলে মেয়ে জাতি আসলে খারাপ না এই যেমন ধর রিমি আপু, আর আমরা বলি মামা এতোদিনে লাইনে আসছ।

আস্তে আস্তে এভাবে কিভাবে যেন আপুর সাথে আমাদের খাতির বাড়তে থাকে, আমি বলি পড়াশুনার কথা, কবি শুনায় কবিতা আর সেলিম শুধুই গল্প। রাতে আপু কে মোবাইলে কল করে না পেলে বাকি দুই টার মোবাইলে কল দিয়ে দেখি ব্যস্ত নাকি। তিন জনের মধ্যে ভয় বাকি দুই জন না সফল হয়ে যায়। আমি রাতে মধুর স্বপ্ন দেখি- দুর কোন পাহাড়ে আমি আর রিমি সাথে পাহাড়ী নিরবতা আর আমাদের না বলা হাজার কথা । যে কবি জীবনে কোন কবিতা ছাপাতে পারেনি তার প্রেমের কবিতা শুনে লিটল ম্যাগ সম্পাদক হাসান ভাই পর্যন্ত বলে সাধু সাধু , তোমাকে দিয়েই হবে । সারা জীবন কাপড় এর দিকে খেয়াল না করা সেলিম নতুন নতুন চুল এর স্টাইল আমদানি করে । আপু যখন তার ক্লাসমেট দের সাথে কথা বলে আমরা কড়া চোখে তাকাই। কিন্তু এতকিছুর পরও আমদের প্রেম জমে না।

কিন্তু ঝামেলা দেখা দেয় অন্য দিক থেকে, আস্তে আস্তে আমাদের ক্লাসের এক জন দুই জন করে সবাই জানতে থাকে আমাদের এই প্রেমো চেষ্টার কথা। শেষ পর্যন্ত জানতে থাকে সিনিয়রাও। কিন্তু এই সব চোখে পরে না শুধু আমদের এই তিন মজনুর। রিমি আপুও হয়ত এই কথা শুনে থাকবে বা আমাদের আচরণে কিছু আন্দাজ করে থাকবে, উনি আমদের এড়িয়ে যেতে থাকেন। আর হতাশ এই তিন মজনু‘র প্রত্যেকে এসবে বাকি দুই মজনুর হাত দেখতে পায়। হতাশা থেকে আমাদের মধ্যে দেখা দেয় দূ্রত্ব। হায়রে প্রেম এ শুধু মানুষ কে কাছে আনে না বন্ধুদের দূ্রেও সরিয়ে দেয়।

এর মাঝে রিমি আপু এক দিন আমদের তিন জন কে ডাকে । আমরা সবাই নিজের নিজের চান্স এর কথা ভেবে খুশি হয়ে উঠি। কিন্তু বাছা তুমি ভাব এক আর হয় আরেক। সিনেমার দুই নাম্বার নায়কের মত আপু আমাদের বলে দেখ- তোমরা আমার ছোট ভাই এর মত। আমি জানি তো্মরা কি ভাবছো। এসব ভুলে যাও, দেখো আরো কোন সুন্দরী মেয়ে তোমাদের জীবনে আসবে। এসব শুনে আমি নিচে তাকিয়ে থাকি, সেলিম নখ কামড়ায় আর কবি দূ্র আকাশে তাকিয়ে থাকে।

তারপর? তারপর আর কি? আমরা তিন জন আবার বসে থাকি রোকেয়া হলের কোণায়। আমি বলি প্রেম বড় কঠিন , কবি বলে দেখ ঐ মেয়েটা মনে হয় আমার দিকে তাকালো। আর সেলিম ?……… ঔ বলে নারী মাত্রই ছলনাময়ী ।

|

৪৮ টি মন্তব্য : “আজেবাজে গল্প”

  1. তুমি ভালো লিখো, কিন্তু খুব তাড়াহুড়ো করে লিখো।
    অনেক বানান উল্টোপাল্টা হয়ে ছিলো। পড়তে গিয়ে লেখার মজাটাই চলে যায়।
    কমেন্ট দিতে গিয়ে দেখলাম ফয়েজ ভাই একবার বলেছেন। কিছু আমি ঠিক করে দিলাম। তুমি আরেকবার দেখে নিবে আশা করি। :D :D

    জবাব দিন
    • আপনার ভাল লেগেছে জেনে ভাল লাগল ভাইয়া :D আসলেই লেখাটা অনেক তাড়াহুড়া করে লেখা :( বানান ভুল গুলো ঠিক করে দেওয়ার চেষ্টা করেছি :) তারপরেও যদি থাকে মন্তব্যে জানাবেন প্লীজ :) আর বানান ভুল করা আমার জন্মগত দোষ :( এই নিয়া অনেক মজার কাহিনি আছে পরে একদিন এই নিয়া ব্লগামু :D


      মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

      জবাব দিন
  2. আমিন (১৯৯৬-২০০২)

    পড়লাম লিখাটা। প্লট টা ভালো। তোমার লেখার স্টাইল আমার ভালো লাগে এমনিতেই। তবে একটু তাড়াহুড়া করছো মনে হয় লেখা নিয়া। তাই একটু ফ্ল্যাট লাগছে আমার কাছে। এই জিনিসগুলোই আরো গভীরে গিয়ে লিখতে পারতে। আমার যা মনে হইছে বললাম। ডোন্ট মাইন্ড প্লিজ।

    জবাব দিন
    • আপনার কথায় ভাল লাগল ভাইয়া :) চেষ্টা করব পরের লেখা গুলোতে এই ভুল গুলো যেন আর না হয় :)
      আরে ...... মাইন্ড খাব কেন :-o আপ্নেতো আমার লেখার ভালর জন্যই বলছেন :)
      আর আমারা সত্য কে ভয় পাইনা কারন আমার হাউস ছিল গোমতী আর মটো ছিল সত্যই সুন্দর ;)


      মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

      জবাব দিন
  3. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    সিনিয়রের সঙ্গে প্রেম করার চেষ্টার অপরাধে পেনাল কোডের ২৮৯ ধারায় (শার্লী খবরদার বই বাইর কইরো না) রাশেদের ভ্যাঞ্চাই!! :chup: :chup: :chup:

    ইটি : আহ্‌ আমার সঙ্গে যদি কুনু জুনিয়র চেষ্টা করতো?? :no: :no: :no:


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  4. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    রাশেদ, তোমার লেখার আমি একজন একনিষ্ঠ ভক্ত... :D

    আর একটু সময় নিয়ে লিখিও... :-B
    (সবাই বলল, তাই চামে আমিও... :khekz: )


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  5. নাআআআআ.....আমি ব্লগের রেজিষ্টার্ড মেম্বার...এই কি তবে মোর দোষ?নইলে কেন আমি স্হান পাবনা তোর এই অমর প্রেমকাহানীতে??ধুরর..তোর ব্যান চাই :bash: :bash:
    হালার্ভাই,তুই একটা...থাক সামনাসামনি কমুনে ;)
    গল্প জোট্টিল হইছে...পুরা টাকরালে টাইপ.. :D :D
    অফটপিক:হলে আসিস একদিন

    জবাব দিন
    • নারে তোর কথায় দারুন অনুপ্রানিত হইলাম :D
      অফটপিকঃ বড়দের সাথে প্রেম করার ব্যাপারে পেনাল কোড কি বলে ;) আর কোমলমতি মেয়েদের সাথে প্রেম করতে চাওয়ায় আমি লাবলু ভাইয়ের বিরুদ্ধে জনস্বার্থে মামলা করতে চাই :D তুই আমার ল'ইয়ার :thumbup: সাবধান লাবলু ভাই :grr:


      মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

      জবাব দিন
  6. রকিব (০১-০৭)

    :clap: :clap: ইহা কী পড়িলাম, আহা এখনও যেন স্বাদ(গল্পের) লাগিয়া আছে।
    বড়ই চমৎকার।
    আপনার ফ্যান লিষ্টে এ্যাড রিকোয়েষ্ট পাঠাইলাম। :D :D


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।

:) :( :P :D :)) :(( =)) :clap: ;) B-) :-? :grr: :boss: :shy: x-( more »

ফেসবুক মন্তব্য